রাজবাড়ী হেল্প লাইনের ফ্রি অক্সিজেন সেবা ফোন দিলেই মিলবে অক্সিজেন সিলিন্ডার প্রশংসনীয় উদ্যোগ

112

মেহেদী হাসান ঃ সারাদেশে প্রতিদিন মহামারি নভেল করোনা ভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ছে। সেই সাথে পাল্লা দিয়ে বাড়ছে মৃত্যর মিছিল। আক্রান্ত ও মৃত্যর মিছিল যখন বাড়ছে তখন হাহাকার দেখা দিয়েছে হাসপাতালগুলোতে সয্যা ও আইসিইউ এর। দেশের বড় বড় ব্যাবসায়ী, অভিনেতা ও রাজনৈতিক ব্যক্তিরা শত চেষ্টা করার পরও যখন পাচ্ছেন না আইসিইউ ব্যবস্থা ঠিক তখনই রাজবাড়ীবাসিকে আইসিইউ সংকটের সমাধানে এগিয়ে এসেছে একটি বেসরকারী অরাজনৈতিক সংগঠন রাজবাড়ী হেল্প লাইন। এরই মধ্যে তারা সকল প্রকার প্রস্তুতি গ্রহন করেছে। সংগ্রহ করেছে পনেরটি অক্সিজেন সিলিন্ডার। খোলা হয়েছে চারটি আলাদা আলাদা হেল্প লাইন। যার প্রচার চালানো হচ্ছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেইসবুকে। সেখানে তারা উল্লেখ্য করেছেন কেউ যদি অক্সিজেন সংকটে পরে তবে মোবাইল নম্বরে ফোন দিলেই সংগঠনের কর্মীরা বাড়িতে বাড়িতে এই সেবা পৌছে দিবেন।
“সুস্থ্য ভোরে আমরা এক সাথে হাটবো অনেক দুর” এই স্লোগানকে সামনে রেখে রাজবাড়ী হেল্পলাইনের সার্বিক তত্ত্বাবধানে রয়েছে জয়ন্ত দাস, নেহাল আহম্মেদ. ইঞ্জিনিয়ার আব্দুল্লাহ আল মামুন রনি, ডাঃ সুমন হুসাইন।
গতকাল সোমবার সকালে ওই সংগঠনের কর্মীদের দেখাযায় শহরের বড়পুল এলাকায় তাদের অস্থায়ী কার্যালয়ে অক্সিজেন সিলিন্ডারগুলো সাজিয়ে রেখেছেন। এ সময় রাজবাড়ী হেল্পলাইনের সার্বিক তত্বাবধানে থাকা নেহাল আহম্মেদ বলেন, দেশের এই সংকটময় মুহুর্তে যার যার স্থান থেকে এগিয়ে আসা প্রয়োজন। আমরা রাজবাড়ীবাসি হিসেবে রাজবাড়ীবাসির পাশে থাকার চেষ্টা করেছি। সমাজের বৃত্তবান ও সচেতন মানুষেরা এগিয়ে আসছে। একটি মানুষও যেন অক্সিজেনের সংকটে না পরে আমরা সেই চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি।
রাজবাড়ী হেল্পলাইনের তত্বাবধানে থাকা অপরকর্মী জয়ন্ত দাস বলেন, আমরা প্রাথমিকভাবে ১৫ টি অক্সিজেন সিলিন্ডার দিয়ে শুরু করেছি। মঙ্গল অথবা বুধবারের মধ্যে আমাদের সিলিন্ডার হবে ২০ টি। আমরা আমাদের হেল্প লাইনগুলো সচল রেখেছি। যে কেউ ফোন দিলেই তার বাড়িতে অক্সিজেন সিলিন্ডার পৌছে দেওয়া হবে।
সংঘঠনটির অপর কর্মী ডাঃ সুমন হোসাইন বলেন, রাজবাড়ী হেল্পলাইন একটি স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন যে সংগঠনটি একটি নতুন ভোরের স্বপ্ন দেখে। তিনি আরো বলেন, শুধু অক্সিজেন সেবা নয়, পাশাপাশি রাজবাড়ী হেল্পলাইন রমজানের প্রথম দিন থেকে ৫ টাকায় ৫০ জন করে অসহায় মানুষের মাঝে ইফতার বিতরন করে আসছে। যা রমজানের সারা মাস চলমান থাকবে।

Advertisement

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here