• শুক্রবার, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৮:২১ অপরাহ্ন
শিরোনামঃ
দুঃসময়ের ত্যাগী কর্মীদের কমিটিতে সুযোগ দিতে হবে :সেতুমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বের প্রশংসায় পঞ্চমুখ গুতেরেস মহাসড়ক থেকে দেশীয় অস্ত্রসহ ডাকাত দলের ৩ সদস্য আটক কালুখালীতে দুই দিন ব্যাপী পুষ্টি বাগান প্রশিক্ষণ বালিয়াকান্দিতে হত্যা মামলার আসামী অটোভ্যানসহ ২জন গ্রেফতার কালুখালীতে আইসিভিজিডি অবহিত করণ সভা বহরপুর ক্যামব্রিয়ান আইডিয়াল স্কুল এন্ড ক্যাডেট একাডেমি শিক্ষার মানোন্নয়নে বদ্ধপরিকর দৌলতদিয়ায় এক কাতলের দাম ৩৬ হাজার ৩৫০ টাকা বালিয়াকান্দি উপজেলা মাসিক আইন-শৃঙ্খলা বিষয়ক সভা পাংশায় র‌্যাব সদস্যদের হাতে হয়রানির প্রতিবাদে সুষ্টু তদন্ত পুর্বক ব্যবস্থা গ্রহণের দাবীতে সংবাদ সম্মেলন

বালিয়াকান্দিতে গড়াই নদীর ভাঙ্গন পাকা সড়ক ও বেড়িবাঁধ বিলীন হওয়ার ৩বছর পরও মেরামতের উদ্যোগ নেই

প্রতিবেদকঃ / ৪৩ পোস্ট সময়
সর্বশেষ আপডেট মঙ্গলবার, ৩ আগস্ট, ২০২১

স্টাফ রিপোর্টার ঃ রাজবাড়ীর বালিয়াকান্দি উপজেলার নারুয়া ইউনিয়নের মরাবিলা-কোনাগ্রাম এলাকায় গড়াই নদীর ভাঙ্গনে পাকা সড়ক ও বেড়িবাঁধ নদীগর্ভে বিলীন হলেও ৩বছরেও মেরামতের কোন উদ্যোগ নেই। ফলে বাড়ী-ঘর, ফসলী জমি প্রতিবছরই নদীগর্ভে বিলীন হওয়াসহ চলাচলে চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে।
এলাকাবাসী অভিযোগ করে বলেন, গড়াই নদীর মরাবিলা এলাকায় সবচেয়ে ভয়ানক ভাঙ্গন প্রতিবছরই শুরু হয়। কৃষি প্রধান এলাকা হওয়ার কারণে মানুষের ও যানবাহন চলাচলের জন্য পাকা সড়ক নির্মাণ করা হলেও গত ৩ বছর আগেই ভেঙ্গে নদীতে বিলীন হয়েছে। নতুন করে বেড়িবাঁধ মেরামত বা নির্মাণ না করার কারণে চলাচলে মানুষের চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। শুধু তাই নয় প্রতিবছরই শুনি নদীতে ভাঙ্গন প্রতিরোধে জিও ব্যাগ ফেলানো হয়। কিন্তু মরাবিলা এলাকায় এক ব্যাগও জিও ব্যাগ ফেলানো চোঁখে পড়েনি। প্রতিবছর বিভিন্ন জনপ্রতিনিধি, সরকারী কর্মকর্তা, পানি উন্নয়ন বোর্ডের কর্তা ব্যক্তিরা পরিদর্শন করে ছবি তুলে চলে যান। তবে ভাগ্যের পরিবর্তন হয়নি এ এলাকার মানুষের। আমরা দ্রুত বেড়িবাঁধ নির্মাণসহ ভাঙ্গন প্রতিরোধে টেকসই বাঁধ নির্মাণের দাবী জানাচ্ছি। নদীতে যে ভাবে পানি বাড়ছে এ বছরও ব্যাপক ভাঙ্গনে ক্ষতির মুখে পড়তে হবে।
স্থানীয় বাসিন্ধারা বলেন, প্রতিবছর যখন পানি বৃদ্ধি ও ভাঙ্গন শুরু হয় তখন জিও ব্যাগ ফেলানো হয়। তবে শতভাগ তো নয়ই প্রভাবশালী ঠিকাদার কাজ করায় ইচ্ছামতো কাজ করে চলে যায়। পানির সময় কাজ করলে তো জিও ব্যাগ গুনা যায় না।
স্থানীয় বাসিন্ধা শহিদুল ইসলাম বলেন, আমরা কোন ত্রাণ চাই না, আমরা মরাবিলা এলাকায় ভাঙ্গন প্রতিরোধে টেকসই বেড়িবাঁধ নির্মাণের জন্য মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করছি।
নারুয়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মোঃ আব্দুস সালাম মাষ্টার বলেন, নারুয়া ইউনিয়নের মরাবিলা এলাকায় পাকা সড়ক ও বেড়িবাঁধ নদীগর্ভে বিলীন হয়ে যায়। আমরা নতুন করে মাটি দিয়ে বাঁধ নির্মাণ করে মানুষের চলাচল উপযোগী করলেও সেটিও ভেঙ্গে নদীতে চলে গেছে। এখন এ এলাকার মানুষের চলাচলের কোন সড়ক নেই। গড়াই নদীর ভাঙ্গনে মরাবিলা, কোনাগ্রাম, জামসাপুর, নারুয়া, সোনাকান্দর, বাঙ্গরদাহ এলাকায় প্রতিবছরই ভাঙ্গনের শিকার হয়। পানি উন্নয়ন বোর্ড কিছু কিছু এলাকায় জিও ব্যাগ ফেলানোর কাজ করেছে। ফরিদপুর নদী গবেষণা ইনস্টিটিউটের উদ্যোগে বাঁশের বেড়া নির্মাণ কাজ করে। এতে কিছুটা ভাঙ্গন প্রতিরোধ হয়েছে। তবে মরাবিলা এলাকায় ব্যাপক ভাঙ্গনের শিকার হলেও সেখানে কোন ভাঙ্গন প্রতিরোধে পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়নি। বালিয়াকান্দি পানি উন্নয়ন বোর্ডের কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, গড়াই নদীতে জিও ব্যাগ ফেলানোর কাজ করা হয়েছে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ ক্যাটাগরিতে আরো সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশকঃ
খান মোহাম্মদ জহুরুল হক

সম্পাদকীয় কার্যালয়ঃ
রাজবাড়ী প্রেসক্লাব ভবন (নীচ তলা),
কক্ষ নং-৩, রাজবাড়ী-৭৭০০।

Contact us: editor@dailyrajbarikantha.com

প্রকাশনাঃ
সম্পাদক কর্তৃক বি এস প্রিন্টিং প্রেস, ৫২/২ টয়নবী সার্কুলার রোড, ঢাকা-১২০৩ থেকে মুদ্রিত এবং দক্ষিণ ভবাণীপুর, রাজবাড়ী থেকে প্রকাশিত।

মোবাইল- ০১৭১১১৫৪৩৯৬,
বার্তা বিভাগ- ০১৭৫২০৪০৭২০,
বিজ্ঞাপন বিভাগ- ০১৯৭১১৫৪৩৯৬

error: Sorry buddy! You can\'t copy our content :) Content is protected !!