• বুধবার, ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০১:৫০ পূর্বাহ্ন
শিরোনামঃ
রাজবাড়ীতে আদালতের নির্দেশে জমির দখল বুঝে পেলেন নাসির উদ্দিন কৃষক পরিবারের সন্তানদের অংশগ্রহণে দৌলতদিয়ায় নাইট সর্টপিস ক্রিকেট টুর্নামেন্ট উদ্বোধন বালিয়াকান্দি বেসরকারি ক্লিনিক হাসপাতাল ল্যাব ও ডায়াগনস্টিক সেন্টারে অভিযান পাংশায় বেসরকারি ক্লিনিক হাসপাতাল ল্যাবও ডায়াগনস্টিক সেন্টারে অভিযান গোয়ালন্দ উপজেলা চেয়ারম্যান কাপ ক্রিকেটের ফাইনালে দূরন্ত ক্রিকেট একাদশ চ্যাম্পিয়ন কালুখালীতে জাতীয় স্থানীয় সরকার দিবস পালিত পাংশায় জাতীয় পরিসংখ্যান দিবস পালিত বালিয়াকান্দিতে জাতীয় পরিসংখ্যান দিবসে র‌্যালী ও আলোচনা সভা পাংশায় জাতীয় স্থানীয় সরকার দিবস পালিত গোয়ালন্দে জাতীয় স্থানীয় সরকার দিবসে র‌্যালী ও আলোচনা সভা

রাজনৈতিক দলের ডাকা অবরোধ কর্মসূচিতে মহাসড়কের নিরাপত্তায় সতর্ক আহলাদীপুর হাইওয়ে থানা

প্রতিবেদকঃ / ৮৬ পোস্ট সময়
সর্বশেষ আপডেট রবিবার, ৩ ডিসেম্বর, ২০২৩


স্টাফ রিপোর্টার : রাজনৈতিক দলের ডাকা অবরোধ কর্মসূচিতে (২৮ অক্টোবর থেকে ৩ ডিসেম্বর পর্যন্ত) মানুষের জান মাল ও মহাসড়কের নিরাপত্তার লক্ষ্যে অক্লান্ত পরিশ্রম করে যাচ্ছে রাজবাড়ীর আহলাদীপুর হাইওয়ে থানা।
অবরোধ ও হরতালের নামে গাড়িতে অগ্নিসংযোগ, ককটেল বিস্ফোরণ, পেট্রলবোমা নিক্ষেপের মাধ্যমে নাশকতা করার চেষ্টা চলছে। এ সব রোধ কল্পে হ্ইাওয়ে পুলিশ মাদারীপুর রিজিয়ন, ফরিদপুরের আহলাদীপুর হাইওয়ে থানা, রাজবাড়ীর অওতাধীন ঢাকা-খুলনা ও ঢাকা-কুষ্টিয়া মহাসড়কে অবরোধ ও হরতালের নামে গাড়িতে অগ্নিসংযোগ, ককটেল বিস্ফোরণ, পেট্রলবোমা নিক্ষেপের মাধ্যমে নাশকতা যেন না করতে পারে সে বিষয়ে আহলাদীপুর হাইওয়ে থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ আব্দুল হালিমের নেতৃত্বে একটি চৌকস টিম দিন রাত মহাসড়কে চলাচলরত গাড়ি গন্তব্যস্থলে পৌছিয়ে দিচ্ছে।
অবরোধ ও হরতালের নামে গাড়িতে অগ্নিসংযোগ, ককটেল বিস্ফোরণ, পেট্রলবোমা নিক্ষেপের মাধ্যমে নাশকতা করার চেষ্টার এমন পরিস্থিতিতে কেউ যেন পেট্রোল পাম্প ও সিএনজি স্টেশনে অগ্নিসংযোগ করাকে বেছে নিতে না পারে এবং পেট্রোল পাম্প থেকে পেট্রোল/জ্বালানি তেল সংগ্রহ করে কোনো ধরনের নাশকতা করতে না পারে সে লক্ষ্যে নির্দেশনা দিয়েছে পুলিশ সুপার হাইওয়ে পুলিশ মাদারীপুর রিজিয়ন, ফরিদপুর।
নির্দেশনাগুলো হলো, পেট্রোল পাম্প ও সিএনজি স্টেশন ভাঙচুর ও অগ্নিসংযোগসহ সব ধরনের নাশকতা রোধকল্পে পুলিশি নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার ও নজরদারি বৃদ্ধি করবেন। থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তারা (ওসি) নিজ নিজ অধিক্ষেত্রে অবস্থিত পেট্রোল পাম্প ও সিএনজি স্টেশনগুলো সরেজমিনে পরিদর্শন করে সার্বিক নিরাপত্তা তদারকি করবেন এবং কার্যকর নিরাপত্তা নিশ্চিত করবেন। প্রত্যেক অপরাধ বিভাগের উপপুলিশ কমিশনার ও থানার ওসি নিজ নিজ অধিক্ষেত্রে পেট্রোল পাম্প ও সিএনজি স্টেশনগুলোর মালিকদের সঙ্গে সমন্বয় করে ব্যবস্থা নিশ্চিত করবেন। নিজ নিজ পেট্রোল পাম্প ও সিএনজি স্টেশনে নিজস্ব জনবলের মাধ্যমে সার্বক্ষণিক (২৪/৭) নিরাপত্তা নিশ্চিত করা। প্রত্যেক পেট্রোল পাম্প ও সিএনজি স্টেশন এলাকা রাত্রিকালীন ছবি ধারণক্ষমতাসম্পন্ন ও ডিভিআরসহ সিসি ক্যামেরার আওতায় আনা এবং ডিভিআর নিরাপদ স্থানে স্থাপন। সংশ্লিষ্ট থানার ডিউটি অফিসার, ইন্সপেক্টর (তদন্ত/ অপারেশনস), ওসি, ফায়ার সার্ভিস ও জাতীয় জরুরি সেবা ৯৯৯ ফোন নম্বর দৃশ্যমান স্থানে ঝুলিয়ে রাখবেন। পর্যাপ্ত অগ্নিনির্বাপণ সরঞ্জাম রাখা এবং মহড়া করে সরঞ্জামাদির কার্যকারিতা যাচাই করবেন। রিজার্ভারে তেল লোডের সময় নিজস্ব জনবল দিয়ে নিরাপত্তা নিশ্চিত করা এবং ওই সময়ে সব ধরনের যানবাহন পেট্রোল পাম্পে প্রবেশ করতে না দেওয়া। লুজ/খোলা জ্বালানি তেল বিক্রি সম্পূর্ণরূপে বন্ধ রাখা তবে বাড়ি/ফ্যাক্টরি/প্রতিষ্ঠানের জেনারেটর চালানোর জন্য প্রয়োজনীয় জ্বালানি তেল সংশ্লিষ্ট থানার ওসির কাছ থেকে নিরাপত্তা ছাড়পত্র প্রদর্শন সাপেক্ষে বিক্রি করা এবং পেট্রোল পাম্প ও সিএনজি স্টেশনে রক্ষিত রেজিস্টারে লিপিবদ্ধ করা। পেট্রোলিয়ম বিধিমালা ২০১৮-এর লাইসেন্সের শর্তাবলি যথাযথভাবে প্রতিপালন করার পাশাপাশি যেকোনো প্রয়োজনে সংশ্লিষ্ট থানাকে অবহিত করার জন্য বলা হয়।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ ক্যাটাগরিতে আরো সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ